কুড়িয়ে পাওয়া

কুড়িয়ে পাওয়া জীবননগর
শুরু থেকে শুধু ধার;
সকল দাতার অভিনয় পিছে
ঋণের বোঝার ভার।

হাসি কান্নার দিনযাপনে
সদাই সুখের খোঁজ;
আরো ভালো থাকার নেশায়
বিষাদ বেলা রোজ।

টুকরো টুকরো ছেঁড়া তমসুখ
সেলাই করলে তবে;
রংবাহারি চাঁদোয়াঝালর
শামিয়ানা হয়ে রবে।

একটি ক্ষনেই জন্ম, আবার
এক পলকেই মরণ;
আর মধ্যখানের সময়টুকু
প্রশন্ন ক্লেশ বরণ।

প্রবাহমান অশ্রুসিন্ধু, সহচরী
নদী আর সাথী আশ;
সময়ের কাছে বারবার হেরে
বীজিতের নাগপাশ।

পরম বলে কিঞ্চিৎকর
আদপে সবই ছলনা
মহাত্যাগীও স্বার্থান্ধপ্রান
মরদ হোক বা ললনা।

বিবেকের ডাকে উদাসীন সবই
চেতনা দুয়ার রুদ্ধ;
হায় রে মানব, আত্মপ্রশ্নে
সবাই মগ্নবুদ্ধ।

Leave A Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *